Updated on July 28th, 2021 at 9:05 am(BST)

এবার জনপ্রশাসন পদক পাচ্ছেন যাঁরা

চট্টগ্রামের হাটহাজারী উপজেলা সদর থেকে প্রায় ১৭ কিলোমিটার দূরে অবস্থিত ‘মনাই ত্রিপুরা পাড়া’ গ্রামটি ছিল অবহেলিত। কিন্তু এখন গ্রামটির যোগাযোগ ব্যবস্থা ভালো হয়েছে, পল্লী বিদ্যুতের সংযোগ লেগেছে। প্রতিটি পরিবার সৌরবিদ্যুতের সুবিধাও পাচ্ছে। কিছু পরিবারকে দুর্যোগসহনীয় পাকা ঘরও দেওয়া হয়েছে।

নতুন বিদ্যালয় ভবন করাসহ আরও বেশ কিছু সুবিধা দেওয়ায় ‘দুর্গম’ গ্রামটিতে এখন উন্নয়নের ছোঁয়া লেগেছে। সেখানকার তৎকালীন উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) রুহুল আমিনের (বর্তমানে চা বোর্ডে কমরত)) উদ্যোগে ক্ষুদ্র নৃগোষ্ঠীদের জীবনমান উন্নয়নে নেওয়া এই প্রকল্পটি ‘মনাই ত্রিপুরা পাড়া’ মডেল নামে পরিচিতি পেয়েছে। এই কাজের স্বীকৃতি হিসেবে প্রতিষ্ঠান হিসেবে এবার ‌জনপ্রশাসন পদক পাচ্ছে হাটহাজারী উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তার কার্যালয়।

ঢাকাই মসলিন পুনরুদ্ধার করে পদক পাচ্ছে বাংলাদেশ তাঁত বোর্ডের অধীন বাংলাদেশের সোনালি ঐতিহ্য মসলিন সুতা তৈরির প্রযুক্তি ও মসলিন কাপড় পুনরুদ্ধার প্রকল্প। এ রকম বিভিন্ন কাজের জন্য এবার মোট ৩২ জন সরকারি কর্মকর্তা (দলগত মিলিয়ে) এবং তিনটি প্রতিষ্ঠান জনপ্রশাসন পদক পাচ্ছে।

আজ মঙ্গলবার ‘জাতীয় পাবলিক সার্ভিস দিবস’ –এর অনুষ্ঠান উদ্‌যাপনের অংশ হিসেবে এই পদক দেওয়া হচ্ছে। প্রতিবছর দিবসটি ২৩ জুলাই পালন করা হলেও করোনার সংক্রমণ ও ঈদের ছুটির কারণে এবার নির্ধারিত তারিখে তা পালন করা যায়নি। গত বছরও করোনাভাইরাসের সংক্রমণের কারণে দিবসটি উদ্‌যাপন করা হয়নি। এবার ২০২০ এবং ২০২১ সালের জনপ্রশাসন পদক একসঙ্গে দেওয়া হচ্ছে। এ উপলক্ষে আজ রাজধানীর ওসমানী স্মৃতি মিলনায়তনে এক অনুষ্ঠানের আয়োজন করা হয়েছে। এতে গণভবন থেকে ভার্চ্যুয়ালি যুক্ত হবেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা।

জনপ্রশাসন মন্ত্রণালয়ের সর্বশেষ তথ্য অনুযায়ী, সারা দেশে সরকারি কর্মকর্তা-কর্মচারী আছেন ১৫ লাখ ৪ হাজার ৯১৩ জন। এর মধ্যে গত ৭ জুন পর্যন্ত সহকারী সচিব থেকে সচিব পর্যন্ত প্রশাসন ক্যাডারে মোট কর্মকর্তা ৬ হাজার ৩০৬ জন। সাম্প্রতিক সময়ে সরকারি কর্মকর্তা-কর্মচারীদের অনেকেই বিভিন্ন ধরনের বিতর্কিত কর্মকাণ্ডে জড়িয়ে পড়েছেন বলে অভিযোগ উঠছে। এর ফলে অনেকের ভালো কাজ আড়ালে পড়ে যাচ্ছে। বিভিন্ন মন্ত্রণালয়ে কর্মরত কয়েকজন কর্মকর্তা জানালেন, বর্তমানে অসংখ্য কর্মকর্তা খুব ভালো কাজ করছেন। কিন্তু কিছুসংখ্যক কর্মকর্তার বিতর্কিত কর্মকাণ্ডের কারণে সবাইকে সমালোচনার মুখে পড়তে হয়। এ জন্য দুষ্টের দমন ও শিষ্টের লালন নীতি কঠোরভাবে প্রতিপালন করা দরকার।

জেলা পর্যায়ে পঞ্চগড়ের সাবেক জেলা প্রশাসক সাবিনা ইয়াসমিন (ব্যক্তিগত) এবং দলগত শ্রেণিতে খুলনার তৎকালীন জেলা প্রশাসক মোহাম্মদ হেলাল হোসেন ও তাঁর দল এই পদক পাচ্ছেন। এর মধ্যে সাবিনা ইয়াসমিন ‌কন্যারত্নের জন্য এবং হেলাল হোসেন ও তাঁর দল বানীশান্তা যৌনপল্লিতে জন্ম নেওয়া সমাজচ্যুত শিশুদের নিরাপদ আশ্রয় দেওয়ার জন্য এই পদক পাচ্ছেন।
জনপ্রশাসন মন্ত্রণালয় সূত্রে জানা গেছে, জাতীয় পর্যায়ে ব্যক্তিগত শ্রেণিতে (সাধারণ ক্ষেত্র) জনপ্রশাসন পদক-২০২১ পাচ্ছেন বাংলাদেশ সড়ক পরিবহন কর্তৃপক্ষের (বিআরটিএ) বরিশাল বিভাগীয় কার্যালয়ের উপপরিচালক মো. জিয়াউর রহমান। তিনি মোটরযানের ড্রাইভিং লাইসেন্স প্রক্রিয়া সহজ করার কাজের জন্য এই পদক পাচ্ছেন। ইউনেসকোতে বঙ্গবন্ধুর জীবনাদর্শের আন্তর্জাতিকীকরণের লক্ষ্যে প্রশাসনিক ও কূটনৈতিক তৎপরতার জন্য দলগত শ্রেণিতে (সাধারণ) পদক পাচ্ছেন প্যারিসে বাংলাদেশের রাষ্ট্রদূত ও ইউনেসকোতে বাংলাদেশের স্থায়ী প্রতিনিধি কাজী ইমতিয়াজ হোসেন ও তাঁর দল। প্রাতিষ্ঠানিক শ্রেণিতে এই পদক পাচ্ছে বাংলাদেশের সোনালি ঐতিহ্য মসলিন সুতা তৈরির প্রযুক্তি ও মসলিন কাপড় পুনরুদ্ধার প্রকল্প। এ ছাড়া পরিবার পরিচিত কাডের জন্য ব্যক্তিগত (কারিগরি ক্ষেত্র) শ্রেণিতে গোপালগঞ্জের জেলা প্রশাসক শাহিদা সুলতানা, ডিজিটাল পদ্ধতিতে নিবন্ধনের কাজের জন্য দলগত (কারিগরি) শ্রেণিতে যৌথ মূলধন কোম্পানি বা ফার্মসমূহের পরিদপ্তরের তৎকালীন নিবন্ধক (বর্তমানে তথ্য ও সম্প্রচারসচিব) মো. মকবুল হোসেন ও তাঁর দল এবং পেনশন ব্যবস্থা ডিজিটালাইজেশন কাজের জন্য প্রাতিষ্ঠানিক শ্রেণিতে (কারিগরি) অর্থ বিভাগ এই পদক পাচ্ছেন।

জেলা পর্যায়ে পঞ্চগড়ের সাবেক জেলা প্রশাসক সাবিনা ইয়াসমিন (ব্যক্তিগত) এবং দলগত শ্রেণিতে খুলনার তৎকালীন জেলা প্রশাসক মোহাম্মদ হেলাল হোসেন ও তাঁর দল এই পদক পাচ্ছেন। এর মধ্যে সাবিনা ইয়াসমিন ‌কন্যারত্নের জন্য এবং হেলাল হোসেন ও তাঁর দল বানীশান্তা যৌনপল্লিতে জন্ম নেওয়া সমাজচ্যুত শিশুদের নিরাপদ আশ্রয় দেওয়ার জন্য এই পদক পাচ্ছেন।

জনপ্রশাসক পদক ২০২০ পাচ্ছেন দলগত শ্রেণিতে ‘মাতৃমৃত্যু মুক্ত কাপাসিয়া মডেল’–এর উদ্ভাবক মোহাম্মদ আব্দুর রহিম ও তাঁর দল। এ ছাড়া ওই বছরের জেলা পর্যায়ে ব্যক্তিগত শ্রেণিতে পদক পাচ্ছেন ঠাকুরগাঁও সদর উপজেলার ইউএনও আব্দুল্লাহ আল মামুন। তৃতীয় লিঙ্গের জনগোষ্ঠীর আর্থসামাজিক উন্নয়ন ও পুনর্বাসনের জন্য তিনি এই পদক পাচ্ছেন। দলগত শ্রেণিতে নওগাঁর জেলা প্রশাসক মো. হারুন-অর রশীদ ও তাঁর দল পিপিপি অনুসরণ করে আধুনিক মানের সুইমিংপুল, জিমনেশিয়াম ও মিনি লাইব্রেরি স্থাপনের জন্য এবং টাঙ্গাইলের সাবেক জেলা প্রশাসক (বর্তমানে ঢাকার ডিসি) মো. শহীদুল ইসলাম ও তাঁর দল টাঙ্গাইলে বধ্যভূমি সংস্কার ও নবরূপে স্মৃতিসৌধ নির্মাণের জন্য এই পদক পাচ্ছেন। একই বছর প্রাতিষ্ঠানিক শ্রেণিতে হাটহাজারী ইউএনও কার্যালয় এই পদক পাচ্ছে।

Total views 47

মূল প্রকাশকের সংবাদটি পড়তে এই লিংকে ক্লিক করুন Click Here.  উপরের সংবাদ এবং ছবিটি থেকে সংগ্রহীত এবং এই সংবাদটির মূল প্রকাশক কর্তিক সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত। এই সংবাদটি কোন প্রকার সংশোধন পরিবর্তন অথবা পরিবর্ধন ছাড়া অফিশিয়াল ওয়েবসাইট থেকে সংগৃহীত। প্রকাশক কর্তিক যে কোনো আপত্তি webbangladeshgroup@ gmail.com গ্রহণ করা হয়। এই সংবাদে প্রকাশিত সংবাদ, তথ্য বা মতবাদ এর সাথে ওয়েব বাংলাদেশ এর কোন সম্পর্ক নাই এবং কোন প্রকার দায় ভার গ্রহণ করে না।