Updated on January 14th, 2022 at 10:08 pm(BST)

আফগানিস্তানের জব্দ তহবিল অবমুক্ত করুন: গুতেরেস

আফগানিস্তানে অর্থনৈতিক ও সামাজিক পতন এড়াতে তহবিল অবমুক্ত করতে যুক্তরাষ্ট্র ও বিশ্বব্যাংকের প্রতি আহ্বান করেছেন জাতিসংঘের মহাসচিব আন্তোনিও গুতেরেস। গত বৃহস্পতিবার তালেবান সরকারের পক্ষ থেকে বাজেট অনুমোদনের ঘোষণার পর জাতিসংঘের মহাসচিব এ আহ্বান জানিয়েছেন।

বার্তা সংস্থা এএফপির প্রতিবেদনে বলা হয়, গত বছরের আগস্টে আফগানিস্তানের ক্ষমতায় আসার পর প্রথম বাজেট অনুমোদন দিল তালেবান। তবে তালেবানের বাজেটে বিদেশি সাহায্যের উল্লেখ নেই।

তালেবানের ক্ষমতা দখলের পর পশ্চিমা দেশগুলো আফগানিস্তানে কোটি কোটি ডলারের সহায়তা বন্ধ করে দেয়। একে আফগানিস্তানের জন্য একটি অভূতপূর্ব আর্থিক ধাক্কা হিসেবে বর্ণনা করেছে জাতিসংঘ।

তালেবান অর্থ মন্ত্রণালয়ের মুখপাত্র আহমদ ওয়ালি হকমাল বলেন, ‘গত দুই দশকে প্রথমবারের মতো আমরা এমন একটি বাজেট তৈরি করেছি, যা বিদেশি সাহায্যের ওপর নির্ভরশীল নয়। এটি আমাদের জন্য একটা খুব বড় অর্জন।’

৫৩ দশমিক ৯ বিলিয়ন আফগান মুদ্রার এ বাজেট গত বুধবার অনুমোদন দেওয়া হয়। বাজেটের আওতাকাল ২০২২ সালের প্রথম ত্রৈমাসিক। অনুমোদন দেওয়া বাজেটটি প্রায় সম্পূর্ণরূপে সরকারি প্রতিষ্ঠানে অর্থায়নের জন্য নিবেদিত।

জাতিসংঘের মহাসচিব বলেছেন, লাখ লাখ আফগান ‘মৃত্যুর দ্বার প্রান্তে’। আন্তর্জাতিক সম্প্রদায়ের প্রতি আফগানিস্তানকে এ বছর ৫০০ কোটি ডলার তহবিল সহায়তার আহ্বান জানিয়ে তিনি এ কথা বলেন। এ সময় তিনি আফগানিস্তানের জব্দ করা সম্পদ অবমুক্ত করে এর ব্যাংকিং ব্যবস্থা শুরু করার কথা বলেন। যাতে দেশটির অর্থনৈতিক ও সামজিক পতন ঠেকানো সম্ভব হয়।

আন্তোনিও গুতেরেস গত বৃহস্পতিবার সাংবাদিকদের বলেন, ‘হিমায়িত তাপমাত্রা এবং হিমায়িত (জব্দ) সম্পদ আফগানিস্তানের জনগণের জন্য একটি মারাত্মক সংমিশ্রণ এবং জীবন বাঁচাতে অর্থ ব্যবহার করা থেকে বাধা দেয়, এমন নিয়ম এবং শর্তগুলো এই জরুরি পরিস্থিতিতে স্থগিত করা উচিত।’

Total views 138

মূল প্রকাশকের সংবাদটি পড়তে এই লিংকে ক্লিক করুন Click Here.  উপরের সংবাদ এবং ছবিটি থেকে সংগ্রহীত এবং এই সংবাদটির মূল প্রকাশক কর্তিক সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত। এই সংবাদটি কোন প্রকার সংশোধন পরিবর্তন অথবা পরিবর্ধন ছাড়া অফিশিয়াল ওয়েবসাইট থেকে সংগৃহীত। প্রকাশক কর্তিক যে কোনো আপত্তি webbangladeshgroup@ gmail.com গ্রহণ করা হয়। এই সংবাদে প্রকাশিত সংবাদ, তথ্য বা মতবাদ এর সাথে ওয়েব বাংলাদেশ এর কোন সম্পর্ক নাই এবং কোন প্রকার দায় ভার গ্রহণ করে না।